দোয়ারাবাজারে শিক্ষিকাকে ধর্ষণের চেষ্টা

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২৩, ৯:৩৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১২ মাস আগে

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে এক স্কুল শিক্ষিকাকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের শুড়িগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের শুড়িগাঁও গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে হুমায়ুন ফরিদ (২৬) পাশ্ববর্তী বাড়ির এক স্কুল শিক্ষিকার বসত ঘরের জানালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে। খারাপ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার জন্য ঘুমন্ত ওই শিক্ষিকার ওপর হামলে পড়ে এবং তার মুখ চেপে ধরে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

এসময় জোরজবরদস্তি এবং শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটাতে থাকে। রাতের আঁধারে দস্তাদস্তির সময় শিক্ষিকার সুর চিৎকার শুনে অপর খাটে ঘুমিয়ে থাকা স্বামী বখাটে কে ধরে ফেলেন। বখাটের সাথে স্বামী-স্ত্রী দুজনেরই দস্তাদস্তির একপর্যায়ে স্বামীর হাত কামড়ে পরনের প্যান্ট এবং মোবাইল ফেলেই পালিয়ে যায়। পরে তার বিরুদ্ধে দোয়ারাবাজার থানায় ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করেন ওই শিক্ষিকা।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেলে দোয়ারাবাজার থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং অভিযোগের বিষয়ে সরজমিন তদন্ত করেন।

ভিকটিমের স্বামী জানান, ঘটনার পর থেকে বখাটের পক্ষ নিয়ে এলাকার কিছু সংখ্যক প্রভাবশালী লোক বিষয়টি আপোষ মীমাংসায় সমাধান এবং আইনী প্রক্রিয়ায় না যেতে নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করে আসছে। ঘটনার চার দিন পেরিয়ে গেলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছি না। বখাটে এখনও প্রকাশ্যে এলাকায় ঘোরাফেরা করছে।

জানতে চাইলে দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেবদুলাল ধর বলেন, ধর্ষণের চেষ্টায় অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অভিযুক্ত ব্যক্তির পরনের প্যান্ট এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি