শ্রীমঙ্গলে পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ২ প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২৬ নভেম্বর ২০২১, ৮:৩০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ মাস আগে

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ২৮ নভেম্বর পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন বর্তমান মেয়র মোঃ মহসিন মিয়া ( মধু ) এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক। নির্বাচনী সহিংসতায় আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৪ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে শহরের ডাকবাংলা পুকুর পাড় এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার নেতৃত্বে পুলিশ ও র‌্যাব পরিস্থিতি সামাল দেন।

ঘটনার পর আজ শুক্রবার প্রতিদ্বন্দি দুই প্রার্থী পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেন।

এই ঘটনায় আওয়ামী লীগের কর্মী দেলোয়ার হোসেন রাহিদ, আনোয়ার হোসেন তামিম, স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন মিয়ার ছেলে মুরাদ হোসেন সুমন ও ভাতিজা মোশারফ হোসেন রাজ আহত হয়েছেন।

দুপুর আড়াইটায় ডাকবাংলা পুকুর পাড় এলাকার নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মহসিন মিয়া বলেন, গতকাল রাতে আওয়ামী লীগের কর্মীরা আমার বাড়িতে ঢুকে আমার ছেলে ও আমার ভাতিজা ও কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। এসময় আমার কর্মীরা আত্মরক্ষা করতে গেলে আমার ছেলে ও ভাতিজা গুরুতর আহত হন।

তিনি বলেন, আমি এর আগে আরো তিন বার নির্বাচন করেছি। কখনো নির্বাচনের মাঠ এমন হয়নি। আমাদের কর্মীদের প্রকাশ্যে মারধর করা হচ্ছে। হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে। গতকাল পুলিশ ও র‌্যাব না আসলে আমাকেই তারা মেরে ফেলে চলে যেতে। আমার প্রতিদ্বন্দি প্রার্থী নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করে ত্রাসের রাজ্যত্ব তৈরী করতে চাচ্ছেন।

বিকাল ৪টায় গুহ রোডস্থ আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সৈয়দ মনসুরুল হক বলেন, গতরাতে আমার কর্মীরা ডাক বাংলা পাড় হয়ে বাড়িতে যাচ্ছিলো। এসময় মেয়র প্রদপ্রার্থী মহসিন মিয়ার বাড়ির পাশের রাস্তায় আসতেই মহসিন মিয়ার কর্মীরা তাদের মারধর করে টেনে হিঁচড়ে বাড়ির ভিতরে নিয়ে যেতে চাচ্ছিলো। এসময় মহসিন মিয়ার কর্মীদের হামলায় উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক দোলোয়ার হোসেন রাহিদ ও আনোয়ার হোসেন তামিম গুরুতর আহত হন। রাহিদ বর্তমানে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

মনসুরুল হক বলেন, শ্রীমঙ্গলে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত দেখে মহসিন মিয়া শহরে অশান্ত পরিবেশ তৈরী করেছেন। মানুষ যেন ভোট দিতে না পারে সে জন্য তিনি শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করতে আমার নেতা কর্মীদের উপর হামলা করেছেন। আমরা এর তিব্র নিন্দা জানাই।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, রাতে দুই পক্ষের ঝামেলার কথা শুনে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনি। আজ সকাল থেকে পৌর শহরে দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনায় যদি প্রয়োজন হয় আমরা আরো বিজিবি মোতায়েন করবো।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ