দক্ষিণ সুরমায় মোবাশ্বির খুন, পথের কাঁটা সরিয়েছেন পান্না

নিজস্ব প্রতিবেদক ;
  • প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১২ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ সপ্তাহ আগে

পান্নার বয়স যখন ১৪ কিংবা ১৫। তখন তাকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করেছিলেন মোবাশ্বির (৫৯)। এরপর বিয়ের প্রলোভন বিদেশে নেওয়ার আশ্বাস দিতে থাকেন পান্নাকে। বিয়েও করেন তারা, কিন্তু ছিলনা কোনো স্বীকৃতি। মোবাশ্বির নিয়মিত মাদকসেবন (মদ্যপান) করতেন। ঘটনার দিন পান্না নামের ওই তরুণীকে নিয়ে ঘুরাফেরা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট মহানগর পুলিশের মুখপাত্র (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের।

তিনি জানান, গ্রেপ্তারের পর পান্না পুলিশের কাছে প্রাথমিক স্বীকারোক্তি দিয়েছে এবং আদালতে হাজির করার পর ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীও দেয় তরুণী।

এ ঘটনায় নিহত মোবাশ্বেরের বড় ভাই মুহিবুল হক বাদী হয়ে রোববার দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি হত্যা মামলা (নং-২৪) দায়ের করেন। ওই মামলায় পান্না বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে সূত্র জানায়, পান্নার বাবা ও মা মোবাশ্বেরের বাসায় কাজ করতেন। পাঁচ বছর আগে লন্ডনে নেওয়ার লোভ দেখিয়ে পান্নাকে বিয়ে করেন মোবাশ্বের। সময়ের সাথে সাথে বাবার চেয়েও বয়সে বড় মোবাশ্বেরের প্রতি এক ধরনের অনীহা চলে আসে পান্নার। তিনি বুঝতে পারেন তাকে মিথ্যা আশ্বাসে বিয়ে করেছেন বৃদ্ধ মোবাশ্বের। পান্না নতুন জীবন শুরু করার পরিকল্পনা করতে থাকেন । সেই পরিকল্পনা থেকেই স্বামী মোবাশ্বেরকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেন পান্না।

এর আগে শনিবার রাতে দক্ষিণ সুরমা থানাধীন ধোপাঘাট এলাকা থেকে মোবাশ্বেরের মরদেহ তার মালিকানাধীন হাউজিং প্রকল্পের দেয়াল ঘেরা টিনশেড ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় মোবাশ্বেরের মরদেহ মেজেতে প্লাস্টিকের ত্রিপলের ওপর শর্ট প্যান্ট পরিহিত অবস্থায় পড়েছিল। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতের পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে এসএমপি’র উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) সোহেল রেজা বলেন, আমরা ঘটনার মাত্র ৩ ঘন্টার ভেতরে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি ঘাতক পান্নাকে। এ সময় তার কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ইলেকট্রিক তার উদ্ধার করেছি। এই তার মোবিশ্বিরের গলায় পেঁচিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করেন পান্না। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন ঘাতক পান্না। মোবাশ্বির পান্নাকে বিয়ে করলেও পান্নার ভরণপোষণ করতেন না। নিজের প্রয়োজনে বার বার পান্নাকে কাছে ডাকলেও, পান্নার প্রয়োজনে কখনোই মোবাশ্বিরকে পাওয়া যায়নি বলে পুলিশকে জানিয়েছেন পান্না। তাই তিনি পথের কাঁটা সরিয়ে নতুন জীবন শুরু করতে চেয়েছিলেন। পান্নাকে সোমবার আদালতের হাজির করা হবে।

 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ