শিল্পপতি হাজী আফতাব মিয়ার জানাযা ও দাফন সম্পন্ন

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ সপ্তাহ আগে

দৈনিক একাত্তরের কথা পত্রিকার প্রকাশক, ফিজা এন্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিল্পপতি নজরুল ইসলাম বাবুলের পিতা, খ্যাতনামা ব্যবসায়ী, রিফাত এন্ড কোম্পানির চেয়ারম্যান, সাগরদিঘীরপাড় জামে মসজিদের মোতাওয়াল্লি হাজী আফতাব মিয়ার জানাজার নামাজ ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

জানাযার নামাজে ইমামতি করেন দরগাহ জামে মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা হুজায়ফা হোসেইন চৌধুরী। দাফন শেষে মোনাজাত পরিচালনা করেন মরহুমের নাতি এমাদ আহমদ রবি।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বাদ আসর হযরত শাহজালাল (রাহ.) দরগাহ জামে মসজিদে জানাজার নামাজ শেষে দরগাহ গোরস্তানে তাঁকে দাফন করা হয়। এতে সিলেটের রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, সিলেট চেম্বার অব কর্মাসের নেতৃবৃন্দ, রিফাত এন্ড কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, ফিজা এন্ড কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

জানাযার নামাজ ও দাফনকালে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, জেলা জজ কোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, দৈনিক একাত্তরের পত্রিকার সম্পাদক চৌধুরী মুমতাজ আহমদ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও সিনিয়র সাংবাদিক রেজওয়ান আহমদ, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ, কোতোয়ালি থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ ইয়াসিন, সমাজসেবক আলমগীর কুমকুম, সিলেট মহানগর যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ হান্নান, বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি সিলেট ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান জামিল, জেলা যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, ব্যবসায়ী আমির হোসেন খোকন, দৈনিক একাত্তরের কথা পত্রিকার বার্তা সম্পাদক সাঈদ চৌধুরী টিপু, ন্যাশনাল ডেস্ক ইনচার্জ আনন্দ সরকার, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি ও ম্যানেজমেন্ট ইনচার্জ মো. মোহিদ হোসেন, প্রধান প্রতিবেদক মিসবাহ উদ্দীন আহমদ, প্রধান আলোকচিত্রী এস এম সুজন, সিনিয়র আলোকচিত্রী মিঠু দাস জয়, শ্যামল সিলেটের আলোকচিত্রী রেজা রুবেল, আলোকচিত্রী মো. আজমল আলী, ফিজা এন্ড কোম্পানির ডিরেক্টর মাজহারুল ইসলাম আমিন, জিএম এতেসাম মাবরুর, ডিজিএম আবদুর রশিদ লসকর, বিউটি মসলা প্রোডাক্টসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইমরান হোসেইন, জিএম এমারত সরকার প্রমুখ।

এছাড়াও মরহুম হাজী আফতাব মিয়া প্রতিষ্ঠিত দক্ষিণ সুরমার তেতলি লামাপাড়ার রিফাত উল্লাহ ও খাদিজা ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ, সাগরদীঘিরপাড় এলাকার মুরব্বীবর্গ ও যুবসমাজ, মরহুমের আত্মীয়-স্বজন, ফিজা এন্ড কোম্পানি, রিফাত এন্ড কোম্পানির সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার দিনগত রাত ২টা ৩০ মিনিটে হাজী আফতাব মিয়া ভারতে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। সেখান থেকে মরদেহ বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর সাগরদিঘীরপাড়ের বাসায় আনা হয়। তিনি স্ত্রী, ছেলে, মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ