সিলেটে কখন কোথায় ঈদের জামাত

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২১, ৮:৫৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ মাস আগে

এক মাসের সিয়াম সাধনার পর আসছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। করোনা মহামারির কারণে সারা দেশের মতো সিলেটেও উন্মুক্ত স্থানে ঈদ জামাত আয়োজনে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এর ফলে প্রতিবারের মতো এবার সিলেটের ঐতিহ্যবাহী শাহি ঈদগাহ মাঠে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে না। তবে নিরাপদে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পাড়া-মহল্লার মসজিদে ঈদ জামাতের অনুমতি রয়েছে।

আগামী শুক্রবার (১৪ মে) সারা দেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়ের পর থাকবে না কোলাকুলি! ফলে এবারো স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভিন্ন আমেজে সিলেটে উদযাপন হবে ঈদ।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিলেটের হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। একই সময়ে হজরত শাহপরান (রহ.) মাজার মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। গাজী বুরহান উদ্দিন (রহ.) মাজার মসজিদে ঈদের জামাত হবে সকাল ৯টায়। বন্দর বাজারের কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে তিনটি ঈদ জামাত। এর মধ্যে সকাল সাড়ে ৭টায়, সাড়ে ৮টায় ও সাড়ে ৯টায় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। একই এলাকার কালেক্টরেট জামে মসজিদে ঈদের জামাত সকাল ৭টায় ৮টায়, ৯টায় ও ১০টায় ৪টি ঈদ জামাত হওয়ার কথা। এছাড়া সিলেটের বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সাড়ে ৮টায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানা গেছে।

সিলেট নগর পুলিশ পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাতে মুসল্লিদের ১১ নির্দেশনা অনুসরণের আহ্বান জানিয়েছে।

নির্দেশনাগুলোর মধ্যে রয়েছে: করোনাভাইরাসের কারণে ঝুঁকি বিবেচনায় ঈদগাহ বা খোলা জায়গায় ঈদ জামাতের আয়োজন না করা, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে মসজিদে নামাজ আদায়, নামাজে মসজিদের কার্পেট না বিছানো, জামাতের আগে মসজিদে জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করা, মুসল্লিদের নিজ দায়িত্বে জীবাণুমুক্ত জায়নামাজ ব্যবহার, মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিংবা সাবান–পানির ব্যবস্থা করা, মুসল্লিদের নিজ বাসস্থান থেকে অজু করে মসজিদে প্রবেশ করা, অজুতে সাবান দিয়ে ২০ সেকেন্ড হাত পরিষ্কার করা, মুসল্লিদের মাস্ক ব্যবহার, জামাতের কাতারে দাঁড়াতে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা, শিশু-বৃদ্ধ-অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিতরা জামাতে অংশগ্রহণ না করা এবং করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জামাত শেষে কোলাকুলি কিংবা হাত মেলানো থেকে বিরত থাকা।

এ ছাড়া নির্দেশনায় করোনা মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ শেষে দোয়া করার জন্য খতিব ও ইমামদের অনুরোধ করা হয়েছে।

এবিষয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের বলেন, মহানগর এলাকায় এক হাজার ৪৫টি মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তবে কোনো ঈদগাহে বা খোলা ময়দানে ঈদের জামাত হবে না। তবে নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে মসজিদে একাধিক জামাতে ঈদের নামাজ আদায় করা যেতে পারে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ