জেলহাজতে সিলেটের ১৭ মাদক কারবারি

নিজস্ব প্রতিবেদক ;
  • প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ৯:২৪ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৬ দিন আগে

সিলেটের বিমানবন্দর থানাধীন লাক্কাতুরা চা বাগান এলাকা থেকে ১৭জন মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে। এসময় গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে পানির বোতলে সংরক্ষিত ৩৪ লিটার দেশীয় চোলাইমদ জব্দ করে র‌্যাব। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় মাদক আইনে মামলা দায়ের করে।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে গ্রেফতারকৃতদের মাদক মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এরআগে শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাতে র‌্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সামিউল আলমের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব-৯ এর এএসপি আফসান-আল-আলম। তিনি বলেন, গোপন তথ্য পেয়ে র‌্যাব লাক্কাতুরা চা বাগান এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭জন মাদক কারবারীকে গ্রেফতার করে। এসময় ৩৪ লিটার চোলাই মদ জব্দ করে। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে মাদক আইনে বিমানবন্দর থানায় মামলা দায়ের করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে-কোতোয়ালি থানাধীন বাগবাড়ি এলাকার মৃত শহিদুল হকের ছেলে বশীর আহম্মদ (৪২), কানিশাইল এলাকার ১৮২ নং বাসার মৃত আলী মোহাম্মদের ছেলে মাসুদ রানা (৫০), মজুমদারপাড়ার ২০নং বাসার মৃত আব্দুল করিমের ছেলে জালালউদ্দিন (৪৫),পাঠানটুলা এলাকার মোহনা ১৪২নং বাসার মনতাজ মিয়ার ছেলে কবির আহম্মদ (৩২), নাজিরগাও এলাকার মৃত মনফর উদ্দিনের ছেলে কয়েছ আহম্মদ (২৮), আখালিয়া যুগিরপাড়ার মৃত মোনাফর আলীর ছেলে আব্দুলমান্নান (৩৮), শাহপরাণ থানাধীন বহর নয়াগাঁও গ্রামের বিবেকানন্দ নাথের ছেলে শাওন দেবনাথ (২৬),বিশ্বনাথের বাবুনগর গ্রামের রতিস চন্দ্র দাসের ছেলে মনি কিশোর দাস (২৯), একই থানাধীন বাওনপুর গ্রামের আব্দুর রউফের পুত্র মুকিতুর রহমান (২৫), একই থানাধীন এলিমপুর গ্রামের মৃত সাধন চন্দ্র দাসের ছেলে টিটু দাস (২৬), সুনামগঞ্জের দিরাই থানাধীন মজলিসপুর গ্রামের মৃত সুভাষ দাসের ছেলে সুবীর দাস (৩২), নেত্রকোনার খালিয়াজুরি থানাধীন বাঘাটিয়া গ্রামের মৃত বিহারী লাল চৌধুরী ছেলে বিউটন চৌধুরী (৪০), দিরাই থানাধীন হারনপুর গ্রামের মৃত মনিন্দ্র চন্দ্র দাসের ছেলে মৃদুল কান্তি দাস, বানিয়াচং থানাধীন নজিপুর গ্রামের সৈলেন্দ্র কুমার দাসের ছেলে সুবেন্দ্র দাস (৩০), দিরাই থানাধীন কুচিরগাঁও গ্রামের গেনেন্দ দাসের ছেলে সঞ্জয় দাস (৩২), জালালাবাদ থানাধীন ৪৯ লন্ডনী রোডের দুলাল মিয়ার ছেলে আলমগীর (৩৩) ও হবিগঞ্জ সদর থানাধীন সুলতানশি গ্রামের মৃত ওয়াহিদ মিয়ার ছেলে ফরিদ মিয়া (৪৪)।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ