এ কেমন শত্রুতা!

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি ;
  • প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ৮:৪৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

জৈন্তাপুরে পূর্ব শত্রুতার জেরে বিষ দিয়ে লক্ষীপ্রসাদ হাওর গ্রামের সাহাব উদ্দিন এর স্বপ্নের সবজি বাগান ধংস করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায় সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার নিজপাট ইউনিয়নের লক্ষীপ্রসাদ হাওর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহিদের ছেলে কৃষক সাহাব উদ্দিন।

জীবন ও জীবিকার তাগিদে বছরের প্রতিটি মৌসুমে বিভিন্ন জাতের শাক-সবজির চাষ করে থাকেন। নিজের জমি না থাকায় বীর মুক্তিযোদ্ধা তেরা মিয়ার ছেলে আব্দুল কাদিরের আড়াই বিঘা জমি ভাড়া নিয়ে তিনি শাক-সবজি চাষ করে আসচেন।

গত বছরে পার্শ্ববর্তী কামরাঙ্গীখেল গ্রামের মৃত আব্দুল হকের ছেলে রহিম উদ্দিনকে সাথে নিয়ে শেয়ারে সবজি চাষ করেছিলেন। এ বছর জমির মালিক এককভাবে সাহাব উদ্দিনকে ১০হাজার টাকার বিনিময়ে জমি ভাড়া দেন এবং সে তার স্ত্রীকে নিয়ে বিভিন্ন রকম শাক-সবজি চাষ করে।

অন্যদিকে ব্যবসায় শেয়ার না করায় রহিম উদ্দিন প্রায় সময় সাহাব উদ্দিনকে হুমকী দিতে থাকে, সে বলে তুই এবার সবজি চাষ করবি কিন্তু ফসল তুলতে পাবে না, আমি তকে দেখে নেব। এতে করে সাহাব উদ্দিন অনেকটা সাবধানতা অবলম্বন করা সত্তেও মাস খানেক পূর্বে রহিম উদ্দিন রাতের আধারে শিম গাছের বেশ কয়েকটা মাছা কেটে ফেলে।

সাহাব উদ্দিন বিষয়টি স্থানীয় মুরব্বিগণের নিকট বিচার প্রার্থী হলেও রহিম উদ্দিন ছিল ধরাছোয়ার বাহিরে। সর্ব শেষ ৯ জানুয়ারী রাত ১০টায় রহিম উদ্দিন ও লক্ষীপ্রসাদ গ্রামের কালা মিয়া একটি স্প্রে মেশিন দিয়ে ঘাস নিধনের ঔষধ সাহাব উদ্দিনের সবজি বাগানে প্রয়োগ করতে শুরু করে।

এসময় সাহাব উদ্দিন তাদেরকে হাতেনাতে ধরার চেষ্টা করলে তারা তাকে প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে পালিয়ে যায়। এঘটনায় সাহাব উদ্দিন বাদী হয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

এছাড়াও উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা কৃষি অফিসারের নিকটও অভিযোগ করেছেন। ১১ জানুয়ারী জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ সরেজমিন ঘটনা তদন্ত করেন।

এ ব্যাপারে উপ-পুলিশ পরিদর্শক মাহবুব আলম জানান, সবজি বাগানে বিষ প্রয়োগের বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। গরীব অসহায় এই কৃষকের এত বড় ক্ষতি যে বা যারা করেছে তাদেরকে অবশ্যই আমরা আইনের আওতায় নিয়ে আসব, অভিযোগটি আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

কৃষক সাহাব উদ্দিন বলেছেন আমার নিজের কোন জমি নেই কিন্তু জীবিকার তাগিদে অন্যের জমিতে চাষ করি।

গত বছর রহিম উদ্দিনের সাথে ব্যবসা করেছি, কিন্তু এবছর তাকে শরিক না করার কারনে আমাকে সব সময় বলে তর সবজি ক্ষেত আমি দেখে নেব। তার এসব হুমকীর কথা আমি স্থানীয় শালিস ব্যাক্তিগণকে অবহিত করেও কোন বিচার কিংবা নিরাপত্তা পাইনি। বাধা কপি, ফুল কপি এবং শিম সহ বিভিন্ন জাতের সবজিতে বিষ প্রয়োগের কারনে আমার প্রায় ২লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ