পৌর নির্বাচন : বড়লেখায় প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

আদিব মজিদ, বড়লেখা ;
  • প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০২০, ৯:২২ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ মাস আগে

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থীরা প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তারা কর্মী ও সমর্থক নিয়ে ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে প্রচার-প্রচারণা। বিভিন্নস্থানে করছেন সভা-সমাবেশ। দলীয় ও সামাজিক অনুষ্ঠান কোনোটিই বাদ দিচ্ছেন না। তারা এসব অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে সবার সহযোগিতা ও দোয়া চাইছেন।

পৌরসভার উন্নয়নে নিজেদের নানা কর্ম পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে সবার দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছেন। পাশাপাশি দিচ্ছেন উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি। মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি বসে নেই বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা। তারাও প্রচারণা চালাচ্ছেন সমানতালে।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রথম ধাপে আগামী ২৮ ডিসেম্বর ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে বড়লেখা পৌরসভার ভোট গ্রহণ হবে। গত ১১ ডিসেম্বর উপজেলা নির্বাচন ও সহকারি রির্টানিং কর্মকর্তা প্রতীক বরাদ্দ দেন। প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পরপরই মেয়র ও কাউন্সিলর প্রর্থীরা প্রচারণায় নামেন।

নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী (নৌকা), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী সাইদুল ইসলাম (মোবাইল ফোন)। এছাড়া নয়টি ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৬ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী বলেন, যেখানেই যাচ্ছি ভোটারদের ব্যাপক সাঁড়া পাচ্ছি। কারণ আমার গত ৫ বছরে পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। যার সুফল পৌরবাসী ভোগ করছেন। এখনও অনেক উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে মানুষ আবার নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে আমাকে বিজয়ী করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ভোটারদের ব্যাপক সাঁড়া পাচ্ছি। পৌরসভার এখনও অনেক সমস্যা রয়েছে। মানুষ উন্নয়ন বঞ্চিত। তারা পরিবর্তন চান। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হলে জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। আমি নির্বাচিত হলে বড়লেখাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, মোবাইলের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। দলমত নির্বিশেষে মানুষজন আমার জন্য কাজ করছেন। আমি প্রার্থী হওয়ায় সাধারণ মানুষ খুবই উচ্ছ¡সিত। আমি নির্বাচিত হলে বড়লেখা পৌরসভার যত সমস্যা আছে সেগুলো দ্রুত সমাধানের পাশাপাশি বড়লেখাকে একটি মডেল পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলবো।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ের তথ্যমতে, বড়লেখা পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার ১৫ হাজার ৪৪৩ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৭ হাজার ৫২৩ জন ও মহিলা ভোটার হলেন ৭ হাজার ৯২০ জন। নয়টি সাধারণ ও তিনটি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ভোট গ্রহণের জন্যে ১০ টি ভোটকেন্দ্র এবং ৪৩টি ভোটকক্ষ রয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ