প্রতিবাদের পরই গ্রেপ্তার হলো শিশু ধর্ষণ মামলার ২ আসামি

নিজস্ব প্রতিবেদক ;
  • প্রকাশিত: ৪ অক্টোবর ২০২০, ৩:২৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৬ মাস আগে

সিলেট সদর উপজেলার সর্দারগাঁও এলাকায় ৫ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রোববার (৪ অক্টোবর) ভোর ৬ টায় সুনামগঞ্জের আক্তাপাড়া থেকে জসিমকে আর সকাল সাড়ে ১০ টায় নগরীর কালাপাহাড় এলাকা থেকে এখলাছকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো, এসএমপির জালালাবাদ থানার রায়েরগাঁও এলাকার পিতা নাসির উদ্দিনের ছেলে জসিম উদ্দিন এবং এসএমপির জালালাবাদ থানার সর্দারগাঁও এলাকার তজম্মুল আলীর ছেলে এখলাছ আলী।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ- পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ ও অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জ্যোতির্ময় সরকার পিপিএম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তারা বলেন, গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

এর আগে গতকাল শনিবার কেন্দ্রীয় শহিদমিনারে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারের দাবিতে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ জালালাবাদ থানা শাখা ও পূজা উদযাপন পরিষদ সিলেট সদর উপজেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্দন অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর পিতা গত ১৩ সেপ্টেম্বর রাতে জালালাবাদ থানায় দুজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। স্কুল ছাত্রী রায়েরগাঁও প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত।

স্কুল ছাত্রীর পি২তা বলেন, গত রোববার রাত ১০টার দিকে আমার মেয়ে বাতরুমে যায়। ওই সময়ে বিদ্যুৎ ছিলো। একটু পরেই আবার বিদ্যুৎ চলে যায়। এই ফাঁকে সর্দারগাঁও এর এখলাছ আমার মেয়েক মুখে চেপে ধরে ও রায়েরগাঁও’র জসিম আমার মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় বাছাই নদীর চরে। ওইখানে তারা দুজন মিলে ধর্ষণ করে। এরপর তারা আমার মেয়েকে নৌকা করে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার জন্য রাতে নদীর পাড়ে যায়। সেখানে মেয়েটির মামা বিষয়টি দেখতে পেয়ে এগিয়ে আসেন। এসে দেখেন তাদের কাছে তার স্কুল পড়ুয়া ভাগ্নি। এরপর তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে স্কুল ছাত্রীকে ফেলে ঘটনার হোতার দ্রুত পালিয়ে যায়।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ