শায়েস্তাগঞ্জে পৌরসভা মেয়র প্রার্থী সারোয়ার আলম শাকিল

শায়েস্তাগঞ্জ প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮:০৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৭ মাস আগে

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভায় ২০১৫ সালে ৫ম পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং আগামী ডিসেম্বর মাসে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন। উক্ত নির্বাচনে শায়েস্তাগঞ্জের তথা হবিগঞ্জের বিশিষ্টি ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোঃ সারোয়ার আলম (শাকিল) মেয়র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান।

তিনি এ প্রতিনিধি কে বলেন, “নিজ এলাকায় সমাজসেবা করতে কোন পদবী নিয়ে করতে হবে এমন কোন কথা নেই, তবে তিনি ইতিমধ্যেই পৌরসভার ভোটার সমর্থকদের কাছ থেকে দাবি ও আশ্বাস পেয়েছেন নির্বাচনে অংশগ্রহন করার প্রসঙ্গে। এজন্য এলাকার সচেতন ভোটার ও মুরব্বীদের পরামর্শ নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণমূলক সিদ্ধান্তের ঘোষনা দিবেন এবং এবিষয়ে পৌর এলাকার সকলের কাছে সার্বিক সহযোগীতা ও দোয়া চেয়েছেন।

” তবে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের একাধিক সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মোঃ ছালেক মিয়া, মোঃ ফজল উদ্দিন তালুকদার, আতাউর রহমান মাসুক, মোঃ রাহেল মিয়া, মোঃ মাসুদুজ্জামান মাসুক, আবুল কাশেম শিবলু ও বিএনপির সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মোঃ ফরিদ আহমেদ অলি সহ সকলেই সুবিধাজনক অবস্থানে প্রার্থীরা মাঠে নেমে পড়েছেন। কিন্তু এলাকার লোকের মুখে মুখে শুনা যাচ্ছে মোঃ সারোয়ার আলম এর নাম। কৌশলগত কারণে অধিকাংশ প্রার্থী দলীয় পদবী ব্যবহার করতে নারাজ। করোনা ভাইরাসের কারণে প্রকাশ্যে সভা না করে কর্মী সমর্থ্যকদের নিয়ে প্রচার প্রচারণা নিরবে নিভূতে চালিয়ে যাচ্ছেন উঠান বৈঠক। অনেকের নেই প্রচার প্রচারণা।

এদিকে উন্নয়নের স্বার্থে ৯টি ওয়ার্ডের সচেতন মহল দলমত নির্বিশেষ মোঃ সারোয়ার আলম শাকিল’কে আগামী পৌরসভা নির্বাচনে ভোট প্রদানের প্রত্যয়ন ব্যক্ত করছে এবং তিনি নিরব থাকলেও মহল্লায় ভোটার মুখে মুখে আলোচনার ঝড় উঠছে। মোঃ সারোয়ার আলম শাকিল শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা ২নং ওয়ার্ডের দাউদনগর বাজারস্থ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক মরহুম এম. এ. মোক্তাদির ওরফে মকুল মিয়া’র ছেলে এবং ঐতিহ্যবাহী শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় প্রবীন শিক্ষক মরহুম আব্দুল মালেক এর নাতি।

শাকিলের পিতা মৃত্যুর পর বিভিন্ন ব্যবসায় যুক্ত হন। তিনি সততা হিসাবে ব্যবসার পাশাপাশি এলাকার শত শত হত দরিদ্র, ফকির, মিসকিনদেরকে সাহায্য সহ সমাজ সেবায় জড়িত। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ২ শতাধিক পৌরসভা সহ বিভিন্ন স্থানে কর্মচারী চাকুরী করে জীবিকা পালন করছেন বহু পরিবার। তিনি একজন সহজ সরল ও সাদা মনের ব্যক্তি। শায়েস্তাগঞ্জ সহ সারা দেশে হাট বাজারে যখন পেয়াজের মূল্য ১শ টাকা হয়, সেই সময় তিনি ৩০ টাকা মূল্যে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করেন।

এদিকে তিনি কোভিড-১৯ সংক্রমনের সময় পৌরসভা সহ অন্যান্য স্থানে হত দরিদ্রের মাঝে নিজ তহবিল হতে ত্রাণবিতরণ করেছেন। এরপাশে সামাজিক ও সমাজ সেবা উন্নয়নে নিরলশ ভাবে কাজ করছেন। পৌরসভার সচেতন মহল তাকে একজন নিঃস্বার্থ সমাজ সেবক হিসেবে পৌরবাসী দেখতে চায়। কয়েকটি ওয়ার্ডে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় ভূক্তভোগীরা বলেন, আমরা আকাশ চোয়া স্বপ্ন দেখিনা। সাধ্য অনুযায়ী আমরা প্রত্যেক ওয়ার্ডে উন্নত ড্রেন, রাস্তা ও গ্যাস লাইনের ব্যবস্থা চাই। নির্বাচনের পূর্বে সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রতিশতি দিলেও কোন কাজ হচ্ছে না।

আগামী নির্বাচনে যিনি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হবেন, তিনি যেন এলাকার উন্নয়নে গুরুত্ব দেন। এ দাবী ভূক্ত ভোগীদের। সারোয়ার আলম শাকিল কোন রাজনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িত নয়। শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের প্রবীন মুরব্বী সুরুজ আলী জানান, করোনা সংক্রামন এর সময় এলকার বহু লোকের কর্ম না থাকায় কষ্টের মধ্যে অনেক লোক ভোগছেন।

শাকিল নিজ তহবিল হতে পৌরসভার পত্যেক ওয়ার্ডে ত্রাণ দিয়েছে। শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার সচেতন মহল তাকে আগামী শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের যোগ্য ব্যক্তি হিসেবে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী হওয়ার সমর্থন দেন সচেতন তৃণমূল জনগন। শাকিলকে পৌরসভার প্রত্যেক ওয়ার্ডবাসী দল-মত নির্বিশেষে নিঃস্বার্থভাবে সমর্থন করলে ভোটে জয় হবে এবং পৌরসভার উন্নয়ন এবং জনগন সঠিক সেবা পাবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ