বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে চরম ভোগান্তি

এ এস রায়হান, বালাগঞ্জ;
  • প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

সিলেটের প্রবাসী অধ্যুষিত বালাগঞ্জ ও ওসমানীনগর উপজেলাবাসীর চলাচলের জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কটির একাধিক স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড়বড় অসংখ্য গর্ত আর খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। বালাগঞ্জ উপজেলার দেওয়ান বাজার থেকে শুরু হওয়া এই সড়কটি ওসমানীনগর উপজেলার দয়ামীর-চকের বাজার এলাকায় সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের সাথে সংযুক্ত রয়েছে। বর্তমানে সড়কটি যান বাহন চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি সংস্কার বিহীন অবস্থায় পড়ে রয়েছে বলে যানবাহন চালক ও সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসীর অভিযোগ।

সরেজমিন দেখা গেছে, ওসমানীনগর উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের ইছামতি গ্রাম এলাকায় এই এই সড়কটি ‘মিনি পুকুরে’ রুপ নিয়েছে। সড়কে চলাচলকারী ছোটবড় যানবাহনগুলো প্রতিদিনই গর্তের মধ্যে আটকা পড়ছে। কখনও যাত্রীবাহি গাডি উল্টে দুর্ঘটনা ঘটছে। এতে যাত্রী সাধারণ জনদুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সিলেট-সুলতানপুর-বালাগঞ্জ সড়কের মোরার বাজার থেকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের চকের বাজার পর্যন্ত সড়কের দৈর্ঘ প্রায় ৫ কিলোমিটার। এই সড়কে যাতায়াতকারী বালাগঞ্জ উপজেলা ও ওসমানীনগর উপজেলার লোকজন প্রতিদিনই ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বিশেষ করে গর্ভবতী নারী, অসুস্থ ও বয়স্ক লোকজনের যাতায়াত অধিক ঝুঁকিপ‚র্ণ হয়ে ওঠেছে। জানা গেছে, বছর তিনেক আগে বালাগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী অফিসের তত্ত¡াবধানে মোরার বাজার থেকে সড়কের আলেকা নামক স্থান পর্যন্ত সড়কের প্রায় অর্ধেক অংশ সংস্কার করা হয়েছিল। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে সড়কের ওসমানীনগর অংশ সংস্কার বিহীন থেকে যায়। সড়কের সংস্কার বিহীন অংশ এখন ‘মরণ ফাদে’ পরিণত হয়েছে।

সিলেট-২ সংসদীয় আসনের এমপি মোকাব্বির খান বলেন, আমি এই সড়কটি পরিদর্শন করেছি। জরুরি ভিত্তিতে সংস্কারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দিয়েছি। প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে নভেম্বরের মধ্যে সংস্কার কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন এই জনপ্রতিনিধি। এ বিষয়ে ওসমানীনগর উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মো. আবু সাঈদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সড়কটি সংস্কারের জন্য দরপত্র আহবানের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ