মানবসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চান তারেক চৌধুরী

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

মানবসেবায় রাজনীতিবিদ মোবারক চৌধুরীর বংশের এক উজ্জ্বল তারকা তারেক চৌধুরী এগিয়ে আসছে দ্রুতবেগে।
রাজনীতির ময়দানে চৌকষ,সাহসী ও লোভ- লালসাহীন নেতৃত্ব বড়বেশী প্রয়োজন। এ ধরনের এক ব্যক্তিত্ব, তরুণ প্রজন্মের আলোকবর্তিকা আমাদের তারেক হাসান চৌধুরী। হবেনা কেন। তারই বংশে জন্ম নিয়েছে অনেক জ্ঞানী- গুনি মানুষ। এদের মধ্যে মোবারক চৌধুরী একজন। মোবারক চৌধুরীকে কানাইঘাটসহ সিলেটের সকল জ্ঞানী- গুনীরা চিনতেন। মোবারক চৌধুরী আপাদমস্তক এক নিঃ স্বার্থ, নিবেদিত সমাজসেবী ছিলেন। জনপ্রতিনিধি হিসেবে সারাজীবন সিলেট লোকাল বোর্ডে জনপ্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মোবারক চৌধুরী ১৯৩৭ সালে আসাম প্রাদেশিক পরিষদে এম এল এ পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। মোবারক আলী চৌধুরীর তো তারেক চৌধুরীর দাদা। তাহলে পর্যালোচনায় দেখা হলো তারেক চৌধুরী বন্যায় ভেসে আসা হঠাৎ কোন রাজনৈতিক নেতা নন। বরং তারেক চৌধুরী এক রাজনৈতিক পরিবারের লোক।

তারেক চৌধুরী গত উপজেলা নির্বাচনে চেয়েছিলেন সাধারণ জনগনের অনুরোধে ও জনগনের আকাংখা পূরণে নির্বাচন করতে। কিন্তু দলীয় সিদ্ধান্তের প্রতি আনুগত্য করে সেদিন তারেক চৌধুরী নির্বাচন থেকে সরে দাড়ান।
এতেই প্রমান হলো তার মাঝে পদ- পদবির প্রতি কোন লোভ নেই। এ ধরনের লোভহীন মানুষ আজকের সমাজে বিরল।
অনেক সময় দেখা যায় রাজনীতির ময়দানে বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে যাকে প্রার্থী বাছাই করা হয়। তিনি বিজয়ী হয়ে রাজনৈতিক অনভিজ্ঞতার কারনে কিংবা ছাত্র রাজনীতি না করার কারনে দলের বারটা বাজিয়ে ছাড়েন। যা সময়মতো গোয়েন্দা রিপোর্টে এ তথ্য বেরিয়ে আসবে।

রাজনীতির মূল কথা জনগনকে খুশী রাখা ও দলকে সুসংগঠিত করে এগিয়ে নিয়ে যাওনা। কোন জনপ্রতিনিধি এ দুটো কাজ করতে অপারগ হলে সবকিছুই এলোমেলো হয়ে যায়। রাজনৈতিক ময়দানে আবার অনেককে দেখা যায় – দলীয় শৃংখলা না মেনে নির্বাচন করেন আবার দলের পরিক্ষিত নেতা বলে দাবী করেন। কিন্তু বাস্তবে রুটি- রোজিতে ব্যস্ত থাকেন। এমন মামলেট মার্কা নেতা জনগন চায়না। জনগন একজন লোভহীন নেতা চায়।

বিত্ত – বৈভবের পাহাড় রচনায় যাঁরা ব্যস্ত এমন নওজোয়ান নেতা জনগন চায়না। জনগন চায় তাঁদের মনের মতো নেতা। যিনি একটু সুন্দর সমাজ উপহার দেবেন। ইয়া টাকা ইয়া টাকা শ্লোগানে যাঁর রাত- দিন কাটে তাঁকে জনগন কখনো মেনে নিতে পারেনা।
জনগন বাইরে থেকে আসা কোন মৌসুমী নেতা চায়না। স্হানীয় নির্বাচনে জনগন চায়, যে নেতা কানাইঘাটের ধোলা- বালি, কানাইঘাটের আলো- বাতাসে বেড়ে উঠেছে, তাকেই জনগন চায়।

তাই আসুন, আমাদের প্রিয় মানুষটি নিয়ে এগিয়ে চলি।যিনি শিক্ষিত, বিচক্ষণ, রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক প্রজ্ঞা রয়েছে। তাঁকে নিয়ে আগামীদিনের কানাইঘাটকে এগিয়ে নিয়ে যাই। সেই তারেক চৌধুরীর সুস্বাস্থ্য ও কল্যাণ কামনা করছি।

শুভেচ্ছান্তেঃ কানাইঘাটের শান্তি প্রিয় মানুষ।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ