মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব থেকে সাংবাদিক মাহমুদকে বহিষ্কার

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট ২০২০, ৫:২৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

প্রেসক্লাব ও সাংবাদিকদের সম্মান ক্ষুণ্ন হওয়ায় বাম ছাত্রসংগঠনের নেতা, সাংবাদিক মাহমুদ এইচ খানের সহযোগী পদ বাতিল করেছে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব।

নৈতিকতা বিবর্জিত কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে এবং নিজের ফেসবুক পেইজে নিজেকে জড়িয়ে অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার স্ট‍্যাটাস দেওয়ায় তাকে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব থেকে বহিষ্কার করা হয়।

রবিবার (৩০ আগষ্ট) সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব ভবনে প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম শেফুলের সভাপতিত্বে জরুরি কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্তসহ প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস‍্যরা উপস্থিত ছিলেন।

তাছাড়া প্রেসক্লাব ও ক্লাবের সাংবাদিকদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে বা যারা অপপ্রচার করছেন এর বিরুদ্ধে সভায় প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়।

এছাড়া কারো ব‍্যক্তিগত দায়ভার প্রেসক্লাবের নয়, তাই প্রেসক্লাবকে জড়িয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এধরনের মন্তব্য থেকে বিরত থাকার আহবান জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গত ২৫ আগস্ট বামপন্থী সাংবাদিক মাহমুদ এইচ খান নিজের ফেইসবুক পেইজে সামাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ও শহর সভাপতি সজিবুল ইসলাম তুষার এর বিরুদ্ধে মধ্যপ অবস্থায় এক মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। অভিযোগে তিনি তার নিজ বাসায় গাঁজা পার্টির আয়োজনে আসা এক মেয়েকে তুষার মাদকাসক্ত করে জোরপূর্বক ভাবে ধর্ষণ করে এবং এই কাজে মারজিয়া প্রভা নামের এক নারীবাদী এবং রায়হান নামের এক বাম নেতা সহযোগীতা করেছেন বলে তিনি স্টেটাসে উল্লেখ করেছেন। এর একদিন পর অভিযুক্ত তুষার তার ফেইসবুক আইডিতে স্টেটাসে ওই দিনে গাঁজা পার্টি বসেছে এবং তারা মধ্যপ অবস্থায় সম্মতির ভিত্তিতে যৌন কাজ করেছে বলে উল্লেখ করেন। তবে ধর্ষণের বিষয়টি অস্বিকার করে তিনি ওই মেয়ের আগ্রহে যৌন কাজে লিপ্ত হয়েছেন তা অকপটে স্বীকার করেন। এঘটনার পর মৌলভীবাজারের বাম সংগঠনগুলোর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ