সিলেটে বিধবা ভাতা আত্মসাৎকারী ইউপি সদস্যের নামে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ২৮ আগস্ট ২০২০, ২:০১ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

প্রাণের ভয়ে কেউ কথা বলতো না। একের পর এক প্রতিবন্ধী, বয়স্ক ও বিধবা মহিলাদের সরকারি ভাতার কার্ড জিম্মি করে ব্যাংক থেকে নিয়েছেন টাকা। এমনকি বয়স্ক ভাতার কার্ড দেওয়ার নাম করে এলাকার অসহায় মানুষদের কাছ থেকে নিয়েছেন দুই থেকে তিন হাজার করে টাকা। এছাড়াও ভাতা পাওয়ার পর নির্দিষ্ট এজেন্টের মাধ্যমে প্রত্যক ভুক্তভোগিদের কাছ থেকে ১ থেকে ২ হাজার টাকা করে চাঁদা আদায় করতেন।

বারহাল শাহবাগ এলাকায় যা মন চেয়েছে তাই করেছেন। এলাকার কেউ বাধা দিলে হুমকি দিতেন। বারহাল ইউনিয়নের শাহবাগ মুহিদপুর, নুরগর গ্রামের বিভিন্ন বয়স্ক ভাতা ভোগিদের এমন অভিযোগ নিয়ে বারহাল ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিলেট মহানগর যুবলীগ নেতা সুমন আহমদ ওরফে সুমন মেম্বারের বিরুদ্ধে নিউজ প্রচার করে আরটিভি নিউজ। আরটিভি নিউজে এমন সংবাদ প্রচারের পর নড়ে-চড়ে বসে সিলেট জেলা প্রশাসন।

সিলেট জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠি পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমি আক্তার জানান, আমি বিষয়টি শুনেছি এবং জেলা প্রশাসক আমাকে একটি চিঠি দিয়েছেন। আমি তদন্ত কমিটি গঠন করে এর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

অপরদিকে বারহাল ইউনিয়নের শাহবাগ এলাকার মুহিদপুর গ্রামের ভাতাভোগী তাজউদ্দিন জকিগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর মোঃ আব্দুন নাসের জানান, প্রতিবন্ধী, বয়স্ক, বিধবা নারীদের সরকারি ভাতার কার্ড জিম্মি করে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে তাজউদ্দিন নামে একজন মামলা করেছেন। তবে মামলাটি আমাদের তদন্তের মধ্য পড়ে না। মামলাটি সরকারি টাকা আত্মসাতের হওয়ায় আমরা জকিগঞ্জ থানা পুলিশের পক্ষ থেকে সিলেট জেলা পুলিশ সুপারের মাধ্যমে দুর্নীতি দমন কমিশনে মামলাটি পাঠিয়েছি। দুদক বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ