দোয়ারায় প্রতারণা, ব্যাংকের সাড়ে ৮ লাখ টাকা লুট

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২৬ আগস্ট ২০২০, ৩:৫০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৬ মাস আগে

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিয়েছে অগ্রণী ব্যাংকের সাড়ে ৮ লাখ টাকা। আজ বুধবার (২৬ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টা থেকে বেলা দেড়টার মধ্যে অগ্রণী ব্যাংক, দোয়ারাবাজার শাখায় এ ঘটনা ঘটে।

ব্যাংক কর্মকর্তার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ৩টি চেকে সাড়ে ৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক চক্র। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, ওই প্রতারক চক্র গত ১৬ আগস্ট দোয়ারাবাজারয়ের অগ্রণী ব্যাংকে ভুয়া কাগজপত্র এবং ভুয়া তথ্য দিয়ে একটি একাউন্ট খোলে। এরপর থেকে প্রতারক চক্রের সদস্যরা একের পর এক জালিয়াতি শুরু করে। একাউন্ট হোল্ডারের নাম দেয় মো. ফারুক মিয়া, পিতা- কাদির মোল্লা, মাতা- মেহেরজান, গ্রাম- ভবানিপুর, ইউনিয়ন- দোহালীয়া এবং নমিনি দেওয়া হয় ভাই পরিচয়ে তার এক সহযোগী মো. আরিফ মিয়ার। এভাবে অগ্রণী ব্যাংক শাখায় একাউন্ট খোলে চক্রটি। ওই একাউন্টে গত ১৭ আগস্ট ঢাকার সাভার থেকে অনলাইনে জমা হয় ১০ হাজার টাকা। পরে গত সোমবার (২৪ আগস্ট) চেকবই উত্তোলন করে ওই দিনই ১৩ হাজার টাকা একাউন্ট থেকে উত্তোলন করে নিয়ে যায় চক্রটি। পরবর্তীতে আজ বুধবার ব্যাংকের ক্যশিয়ারকে ফাঁকি দিয়ে একই হিসাবের ০২০০১৫৬৬৮৯৬৯ নম্বর একাউন্ট থেকে পর পর তিনটি চেকের মাধ্যমে সাড়ে ৮ লাখ টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায় প্রতারক চক্রটি।

এ ব্যাপারে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড দোয়ারাবাজার শাখার ম্যানেজার মো. জিয়াউল ইসলাম বলেন, ‘চক্রটি সম্ভবত আমাকে ফলো করছিল। গত ১৬ আগস্ট আমি ছিলাম ছুটিতে। ওইদিনই একাউন্টটি খোলা হয়। আর আজ আমি ছিলাম আমাদের ব্যাংকের আয়োজনে অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণে উপজেলা অডিটোরিয়ামে। এ সুযোগে প্রতারক চক্র টাকাগুলো ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে উত্তোলন করে নিয়ে যায়।’

এ ঘটনায় আজ বুধবার বিকেলে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের অঞ্চল প্রধান মো. আশিক এলাহি সরেজমিনে ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখা পরিদর্শন করেছেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ