করোনার মতো করোনা, মানুষের মতো মানুষ

সিলেট ডায়রি ডেস্ক ;
  • প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২০, ৭:৩৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১০ মাস আগে

দেশে করোনা সংক্রমণের প্রায় ৬ মাস অতিবাহিত হতে চললেও করোনা ভাইরাস ঠিক আগেই মতোই বিস্তার লাভ করছে। আর এই ভাইরাসে মানুষ আগের মতোই সংক্রমিত হলেও মানুষ আছে মানুষের মতো। তারা না মানছে সামাজিক দূরত্ব, না মানছে স্বাস্থ্যবিধি। বরং মুখে মাস্ক না পড়েই ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন অনেকে। আর স্বাস্থ্যবিধি মানতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে আগের মতো এখন আর কোন প্রচার-প্রচারণাও করা হচ্ছে না।

বিশ্বজুড়ে মহামারীর রূপ নেওয়া করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ২,২৬৫ জনের জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে ৪৬ জন মারা গেছে। আর করোনা শনাক্তের হার এবং মৃত্যুর সংখ্যা বাড়লেও মানুষ সামাজিক দূরত্ব মানছে না।

সরেজমিনে ঢাকার অলি-গলির চিত্র পুরোপুরি ভিন্ন দেখা গেছে। সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায়ের কোনো নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। একই চিত্র দেখা গেছে নগরীর মূল সড়ক এবং বাজারগুলোতেও। সেখানেও শত মানুষ জটলা বেঁধে চলাচল করছে। সামাজিক দূরত্ব দূরের কথা। বরং মানুষের উপস্থিতিতে রাস্তায় চারপাশ জমজমাট। পাশাপাশি রাজপথে প্রচুর যানবাহনও চলছে।

রাজধানীর পান্থপথে সুলতান নামে এক পথচারীর কাছে সামাজিক দূরত্ব না মানার বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশ জার্নালকে তিনি বলেন, ‘আমি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই চলাচল করি। কিন্তু রাস্তায় বের হলে সামাজিক দূরত্ব আর বজায় রাখা যায় না। কারণ অনেকেই গা ঘেঁষে চলাচল করে। ওই সময় তাদেরকে কিছু বললে তারা বলেন, করোনার ভয় পেলে রাস্তায় বের হয়েছেন কেনো?’

এদিকে করোনায় দীর্ঘ দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর রাজধানীতে গণপরিবহন চালুর কয়েক দিন না যেতেই চরম বিশৃঙ্খলা শুরু হয়েছে। কারণ বাসে ৬০ শতাংশ ভাড়া নেয়ার কথা থাকলেও যাত্রীদের কাছ থেকে ইচ্ছেমত অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। আর একই সঙ্গে বাসে কোন স্বাস্থ্যবিধিও মানা হচ্ছে না। দুই সিটে একজন করে বসানোর নির্দেশনা থাকলেও সব বাসেই দুই সিটে দুইজন করেই যাত্রী বসানো হচ্ছে। তাই ভাড়া বেশি দিয়ে করোনার ঝুঁকি মাথায় নিয়েই মানুষ বাসে চড়ে যাতায়াত করছে। রাজধানীর ফার্মগেট ও কারওয়ান বাজারে যাত্রীবাহী বাসগুলোতে এসব দৃশ্য দেখা গেছে।

অন্যদিকে সরকারকেও করোনা সংক্রমণ রোধে কিছুটা উদাসীন দেখা যাচ্ছে। কারণ সরাসরি ব্রিফিং না করে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে করোনা সংক্রান্ত তথ্য জানাচ্ছে সরকার। এছাড়া রাজধানীর মার্কেটগুলোর ভেতরে বা ট্রাফিক সিগন্যালে এবং রাস্তায় আগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য রেকর্ড করা অডিও বাজানো হলেও এখন তারা করা হচ্ছে না।

এবিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুহার কমে আসায় সরাসরি ব্রিফিং না করে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ সংক্রান্ত তথ্য জানানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের ঘোষণা আসে। আর ১৮ মার্চ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ