নূরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়া সপদে বহাল

সৈয়দ আখলাখ উদ্দিন মনসুর, শায়েস্তাগঞ্জ ;
  • প্রকাশিত: ১৯ আগস্ট ২০২০, ২:২৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মুখলিছ মিয়ার সাময়িক বরখাস্তের আদেশ স্থগিত করেছে এবং তাঁকে চেয়ারম্যান পদে পূর্ণ বহালের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার (১৯ আগস্ট) বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগ এ আদেশ দেন। চেয়ারম্যান মো. মুখলিছ মিয়ার পক্ষে আদালতে লড়েছেন সিনিয়র এডভোকেট আমিনুল ইসলাম। সাময়িক বরখাস্তের আদেশ স্থগিত করে দায়িত্ব পালনে আইনগত কোনো বাধা নেই চেয়ারম্যান মুখলিস মিয়ার বলে জানিয়েছেন তার সিনিয়র আইনজীবী এডভোকেট আমিনুল ইসলাম।

জানা গেছে, নূরপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে গত ৮ মে অভিযান পরিচালনা করেন হবিগঞ্জের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসিন আরাফাত রানা। এ সময় সরকারি ত্রাণ বিতরণ করার জন্য সেখানে দেওয়া দুই হাজার কেজি চালের মধ্যে পাওয়া যায় এক হাজার ৭০০ কেজি চাল। ৩০০ কেজি চালের হদিস না মেলায় বাকি চাল জব্দ করেন এবং অনিয়মের অভিযোগে গত ১৩ মে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ৩৪ (১) অনুযায়ী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

আদালতের প্রতি সম্মান রেখে গত ১৩ জুলাই হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নূরুল হুদা চৌধুরীর আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর ২০ জুলাই জামিনে মুক্ত হয়ে তিনি বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে উক্ত আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেন। দীর্ঘ শুনানী শেষে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এম এনায়েতুর রহিমের বেঞ্চ মঙ্গলবার মুখলিছ মিয়াকে ৭নং নুরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে বহালের আদেশ দেন।

এ বিষয়ে নুরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুখলিছ মিয়া বলেন,আমার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ হাইকোর্টের আপিল বিভাগে মিথ্যা প্রমানিত হওয়ায় আমাকে সপদে বহাল রেখে সকল কার্যক্রম পরিচালনার আদেশ দেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ