জকিগঞ্জ দোকান চুরি, ১৮টি মোবাইল সহ যুবক গ্রেফতার

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০২০, ৫:৫০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৯ মাস আগে

জকিগঞ্জ শহরে একটি মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনায় ১৮টি মোবাইলসেট উদ্ধারসহ জড়িত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত যুবক পৌর এলাকার আনন্দপুর গ্রামের আবুল কালামের ছেলে ইমন মিয়া (১৯)।

সোমবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জকিগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই শাহিনুর রহমান তাকে গ্রেপ্তার করেন। পরে তার তথ্যর ভিত্তিতে ওসি মীর মো. আব্দুন নাসের, ওসি (তদন্ত) সুশংকর পাল ও এসআই শাহিনুর রহমান আনন্দপুর গ্রামের মস্তুফা আহমদ মস্তুর খড়ের ঘর থেকে চুরাইকৃত ১৮টি মোবাইল ও একটি স্পিকার সেট উদ্ধার করেন।

এ নিয়ে মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) দুপুর দেড়টার দিকে সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিং করেছেন জকিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদীপ্ত রায়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, গত ৩ মার্চ গভীর রাতে শহরের শুভ টেলিকম নামক মোবাইলের দোকানে তালা ভেঙ্গে চুরির ঘটনা ঘটেছিলো। এ ঘটনায় জকিগঞ্জ থানায় অজ্ঞাতদেরকে আসামী করে মামলা হয়। পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে তদন্ত চালিয়ে অবশেষে জড়িত যুবককে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। পরে গ্রেপ্তারকৃত যুবকের তথ্যমতে ১৮টি মোবাইল সেটও উদ্ধার করা হয়। দোকানে চুরির ঘটনায় জড়িত যুবক কিশোর থাকাকালেই ভয়ঙ্কর অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ে। সে পাশের বাড়ির একটি ছেলেকে হত্যা করে লাশ গুম করেছিলো। পরে একটি পরিত্যক্ত পুকুর থেকে পুলিশ বাচ্চাটির লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তখন ইমন মিয়াকে পুলিশ আটক করলে সে শিশু হত্যার ঘটনা স্বীকার করে। পরে তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে আদালতে প্রেরণ করলে আদালত তাকে কিশোর সংশোধন কেন্দ্রে পাঠিয়েছিলেন। গত ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে সে জামিনে মুক্তি পেয়ে কিশোর সংশোধন কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যেই এ চুরির ঘটনা ঘটায়। কিশোর বয়স থেকে অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়া ইমন চুরির ঘটনা ঘটিয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছিল। পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে তাকে সনাক্ত করে।

জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মীর মো. আব্দুন নাসের জানান, অভিযুক্ত ইমন মিয়াকে মঙ্গলবার আদালতে প্রেরণ করলে সে বিজ্ঞ আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। আদালতে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ