চৌহাট্টায় পুলিশের মোটর সাইকেলে বোমা!

নিজস্ব প্রতিবেদক;
  • প্রকাশিত: ৫ আগস্ট ২০২০, ৫:০৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

পুলিশের মোটর সাইকেলে বোমা রাখা! বুধবার সন্ধ্যায় হঠাৎ করেই দাবানলের মতো খবরটি ছড়িয়ে পড়ে সিলেট নগরীতে। চৌহাট্টা উৎসুক মানুষের কৌতুহলের কেন্দ্রে পরিণত হয়। ভয়ের ছায়া নেমে আসে পুরো এলাকায়। র‌্যাব, পুলিশসহ বিভিন্ন সংস্থার সদস্যরা ঘিরে ফেলেন জনবহুল এই পয়েন্ট। জিন্দাবাজার পয়েন্ট থেকে চৌহাট্টা অভিমুখী সকল যানবাহন ও জনসাধারণের চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।


পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা একাত্তরের কথাকে জানিয়েছেন, সিলেট মহানগর ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট চয়ন নাইডু বিকেল ৫টার দিকে চৌহাট্টা ট্রাফিক পয়েন্টের কাছে জিন্দাবাজার অভিমুখী রাস্তার বাম পাশে তার মোটর সাইকেল ( নম্বর- ঢাকা মেট্টো-ল ১৪-৯২৭০) পার্কিং করে রাখেন। এরপর দীর্ঘ সময় গড়িয়ে যায়। সন্ধ্যা ৬ টা ২০ মিনিটের দিকে হঠাৎ সেই মোটর সাইকেলে বোমাসদৃশ একটি কালো বস্তু তার চোখে পড়ে। এতে আতংকিত হয়ে পড়েন তিনিসহ উপস্থিত অন্যান্যরা। দ্রুত তিনি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেন।

ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ট্রাফিক পুলিশের ডিসি ফয়সল মাহমুদ, আজবাহার আলী শেখ, পুলিশের ক্রাইসিস রেসপন্স টিমের (সিআরটি) কমান্ডার শাহরিয়ার আল মামুন, কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিয়াসহ অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ডিসি ফয়সল মাহমুদ রাত আটটার দিকে জানান, মোটর সাইকেলের বাম দিকের পেছনের অংশে একটি লাল বস্তু রাখা আছে। সেটি বোমা না অন্য কিছু তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আর এ কারণেই বিপদ এড়াতে জিন্দাবাজার-চৌহাট্টা সড়ক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।


সরেজমিনে দেখা গেছে, রাত সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত পুরো এলাকা কর্ডন করে রেখেছে পুলিশ ও সিআরটি’র সদস্যরা। লাল ফিতা দিয়ে মোটর সাইকেলটি আলাদা করে দেওয়া হয়েছে। রাত পৌণে ৯টার দিকে সেখানে র‌্যাব-৯ এর বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা উপস্থিত হয়ে তাদের কাজ শুরু করেন। তবে রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ‘বোমা’ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঢাকা থেকে র‌্যাবের একটা স্পেশাল টিম আসবে বলে জানান ডিসি আজবাহার আলী শেখ।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ