জকিগঞ্জে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে জিডি, প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০২০, ২:১৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন, ভোটার তালিকাভূক্তি, ভোটার স্থানান্তরসহ উপজেলা নির্বাচন অফিসে নাগরিক হয়রানী, উৎকোচ দাবী, অসৌজন্য আচরণ প্রসঙ্গে কথা বলায় জকিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল খায়ের চৌধুরী ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রহমত আলী হেলালীর বিরুদ্ধে জকিগঞ্জ থানায় মিথ্যা ভিত্তিহীন জিডি করায় শুক্রবার (২৪ জুলাই) রাতে জকিগঞ্জ প্রেসক্লাবে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শাদমান সাকীবের প্রত্যাহারের দাবিতে আগামী মঙ্গলবার মানবন্ধন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত হয়। মানববন্ধন শেষে ঐদিন পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল খায়ের চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি এখলাছুর রহমান, সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন, সাধারণ সম্পাদক শ্রীকান্ত পাল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রহমত আলী হেলালী, কোষাধ্যক্ষ এনামুল হক মুন্না, সদস্য আল হাসিব তাপাদার প্রমুখ।

২০১৯ সালের ৩০ জানুয়ারি জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের জন্য সরকারি ফি জমা দিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসে আবেদন করেন খলাছড়া গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে মুনিম আহমদ। প্রায় ২ বছরেও এ আইডি সংশোধন না হওয়ার কারণ জানতে প্রেসক্লাব সভাপতি নির্বাচন অফিসার শাদমান সাকিবকে ফোন দিলে তিনি এ বিষয়ে কোন সদুত্তর না দিয়ে প্রেসক্লাব সভাপতির সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। কোন ধরনের যাচাই বাছাই ছাড়াই মিথ্যা ও ভিত্তিহীন অভিযোগে পরদিন ২৩ জুলাই প্রেসক্লাব যুগ-সম্পাদক রহমত আলী হেলালীর বিরুদ্ধে এ বিষয়ে জকিগঞ্জ থানায় একটি জিডি করে। ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে একই অভিযোগে জকিগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল খায়ের চৌধুরীর বিরুদ্ধেও অনুরূপ আরেকটি জিডি করেন।

অভিযোগ রয়েছে শাদমান সাকিব জকিগঞ্জ উপজেলায় যোগদানের পর থেকেই নাগরিকরা প্রতিনিয়ত হয়রানীর শিকার হচ্ছে। এমনকি জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনে সরকারের অনলাইন সেবাকে নিরুৎসাহিত করে তিনি ফেইসবুক এবং ইউটিউবে বিবৃতি দিয়েছেন।

জকিগঞ্জের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অনলাইনে সরকারি এ সেবাকে সহযোগিতা করায় তিনি বিষয়েও একাধিক নাগরিকের বিরুদ্ধে জিডি করেন।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ