তিন ঘণ্টা বৃষ্টিতে ভিজে ডিএফপি ঘেরাও সাংবাদিকদের

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০২০, ৪:২৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১ বছর আগে

ন্যায্য পাওনা পরিশোধ, রেটকার্ড বাতিল, প্রচার সংখ্যা নিয়ে জোচ্চরি বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে মঙ্গলবার চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর (ডিএফপি) ঘেরাও করেন সাংবাদিক নেতা ও বিভিন্ন পত্রিকার চাকরিচ্যুত-বঞ্চিত সাংবাদিক-কর্মচারীরা। টানা তিনঘন্টা বৃষ্টিতে ভিজে ঘেরাও কর্মসূচি শেষে ডিএফপি মহাপরিচালকের কাছে স্মারকলিপি পেশ করেন তারা।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে), বাংলাদেশের খবর-এর চাকরিচ্যুত সাংবাদিক-কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদ ও ইংরেজি দৈনিক নিউজ নেশন-এর সাংবাদিক-কর্মচারীরা যৌথভাবে এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ঘেরাও ও স্মারকলিপি পেশ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন ডিইউজের (ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন) সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের দপ্তর সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস চৌধুরী সোহেল।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের খবর-এর সিনিয়র রিপোর্টার ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল বারী, নিউ নেশনের ইউনিট চিফ হেমায়েত হোসেন প্রমুখ। কর্মসূচি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশের খবর-এর সিনিয়র সাব-এডিটর ও ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের (ডিএসইসি) সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ।

কর্মসূচি থেকে উত্থাপিত উল্লেখযোগ্য দাবিগুলো ছিল ঈদুল আজহার আগে সংবাদপত্রের নীতিমালা অনুযায়ী চাকরিচ্যুত সাংবাদিক-কর্মচারীদের সমস্ত পাওনাসহ অন্যান্য কর্মীর সমস্ত বকেয়া পরিশোধ, পত্রিকাটির রেটকার্ড বাতিল, দৈনিক বাংলাদেশের খবর-এর মালিকের প্রতারণার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ, ইংরেজি দৈনিক নিউ নেশন-এর সাংবাদিক-কর্মচারীদের বকেয়া বেতন পরিশোধ, সমস্ত পত্রিকার সার্কুলেশন সংখ্যা নিয়ে জোচ্চরি বন্ধ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, সমস্ত পত্রিকার সার্কুলেশন সংখ্যা নিয়ে জোচ্চরি বন্ধ করতে হবে। এ দেশে সবচেয়ে সার্কুলেটেড কাগজ হিসেবে যেগুলোকে দাবি করা আসলে সেটা তাদের প্রকৃত সার্কুলেশন সংখ্যা নয়। তাই প্রকৃত সার্কুলেশন সংখ্যা খতিয়ে দেখতে হবে ডিএফপিকে।

এ জন্য ডিএফপি ডিজির প্রতি আহ্বান জানিয়ে ডিইউজে সভাপতি বলেন, সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে আলোচনা পর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে তাদের মাধ্যমে পুনরায় নিরীক্ষা কাজ সম্পন্ন করুন। ভুয়া নিরীক্ষার মাধ্যমে রাষ্ট্রের টাকা লুট করতে দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন ডিইউজের এই শীর্ষ নেতা। তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে নিরীক্ষা কাজ সম্পন্ন না করা হলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী ও এবং দুর্নীতি কমিশনে এসব দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ধরা হবে।

কুদ্দুস আফ্রাদ বলেন, আজ পেশ করা স্মারকলিপি যেসব দাবি জানানো হয়েছে, আশা করি ডিএফপি ডিজি সেগুলোর গুরুত্ব অনুধাবন করে তা পূরণে শিগগিরই পদক্ষেপ নেবেন। এছাড়া ঈদুল আজহার আগেই সব পত্রিকাকে নোটিশ পাঠিয়ে এবং তদারকি করে সাংবাদিক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধে ব্যবস্থা নেওয়ার ডিএফপি ডিজিকে অনুরোধ জানান কুদ্দুস আফ্রাদ। অবৈধ পন্থায় সুবিধা নিতে তদবির করার জন্য যারা ডিএফপিতে আসেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতেও বলেন এই সাংবাদিক নেতা।

স্মারকলিপিতে উল্লেখিত দাবিসমূহ বাস্তবায়নে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে ডিইউজে সভাপতি বলেন, অন্যথায় আরো কঠোর ও বৃহত্তর কর্মসূছি দেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ