আসামে তিন বাংলাদেশিকে পিটিয়ে হত্যা, গরু চুরির অভিযোগ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি;
  • প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০২০, ১২:২৬ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১১ মাস আগে

মৌলভীবাজারের জুড়ি উপজেলার ৩ জন বাংলাদেশীকে ভারতের করিমগঞ্জ জেলার পাথারকান্দির ভুবরিঘাট চা বাগান এলাকায় গরু চুরির অভিযোগে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটে ১৯ জুলাই শনিবার মধ্য রাতে। তবে এ বিষয়ে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে গরুচুরির ঘটনায় ৩ বাংলাদেশীকে পিঠিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

জুড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, ভারতীয় গনমাধমে সংবাদ প্রকাশের পর নিহত ৩ জনের ছবি সীমান্তবর্তী এলাকার গ্রামগুলোতে পাঠানো হয়েছে পরিচয় জানার জন্য।
ভারতীয় পুলিশ বলছে সীমান্ত অতিক্রম করে গরু চুরি করতে গিয়ে গ্রামবাসীর গণপ্রহারে মৃত্যুবরণকারী তিন বাংলাদেশি। গত পহেলা জুন তারিখে অনুরূপ ভাবে পাথারকান্দি থানার বৈঠাখাল বাগানে গরু চুরির সময় গণ পিটুনিতে এক বাংলাদেশি গরু চোরের মৃত্যু হয়। মৃতদেহগুলো উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

আসাম পুলিশ জানিয়েছে, তাদের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করা হচ্ছে গরু চুরির অভিযোগ মিথ্যে নয় সম্ভবত। সেই উদ্দেশ্যেই সাত জন বাংলাদেশের নাগরিক করিমগঞ্জের একটি চা বাগানে গিয়েছিল। ঘটনাস্থল থেকে দড়ি, বেড়া কাটার দা-সহ একাধিক সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।
করিমগঞ্জের এএসপি প্রশান্ত দত্ত জানান বাংলাদেশের সীমান্ত পেরিয়ে গরু চুরি করতে আসামে ঢুকেছিল সাত জন। স্থানীয় বাসিন্দাদের মারধরে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। লাঠি, বাঁশ ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে-কুপিয়ে হত্যা করা হয় তাদের।

তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে বিএসএফের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্রশাসনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বাকিরা নিখোঁজ রয়েছে।
সূত্র : দ্যা ওয়াল।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ