২০ বছরে রেকর্ড তাপমাত্রা সিলেটে

নিজস্ব প্রতিবেদক ;
  • প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২১, ৯:৪৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ বছর আগে

আজ সোমবার (২৩ মে) সিলেটে মে মাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা গত ২০ বছরের মধ্যে সিলেটে মে মাসের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। এর আগে ২০০১ সালের মে মাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিলো ৩৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সে হিসেবে আজকের তাপমাত্রা গত ২০ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে বলে জানিয়েছেন সিলেটের জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী।

গত ২০ বছরের মাঝে কোনো মে মাসে তাপমাত্রা এত বেশি হয়নি জানিয়েছেন তিনি বলেন, আজ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সিলেটে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ২৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জ্যৈষ্ঠের শুরুতে গরমে নাভিশ্বাস হয়ে উঠেছে জনজীবনে। তবে গরমের তীব্রতা কমে রাতে বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। তারা বলেছেন, আজ রাতের দিকে বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে, এর প্রভাবে বৃষ্টি বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে পুরোপুরি স্বস্তি ফিরতে অপেক্ষা করতে হবে ২৫ থেকে ২৬ মে পর্যন্ত।

এদিকে রেকর্ড তাপমাত্রায় সিলেটে এখন অসহনীয় গরম। প্রকৃতি নিঃসৃত বাতাসও নেই। এমন অবস্থায় প্রচণ্ড গরমে নাকাল হয়ে পড়েছে জনজীবন। তীব্র গরমে গ্রামের মানুষ গাছগাছালীর ছায়ায় মানুষ আশ্রয় নিতে পারলেও দুর্বিষহ হয়ে উঠেন শহরের বাসিন্দারা। এর মাঝে অসহনীয় সময় কেটেছে নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষের। মধ্যবিত্তরা বৈদ্যুতিক পাখায় কিছুটা প্রশান্তি খোঁজে নিলেও নিম্ন আয়ের খেয়েখাওয়া মানুষেরা ছিলেন অসহায়। এমন বাস্তবতায় নগরের বিপণী বিতানগুলোর সামনে এসির ঠান্ডা বাতাস গ্রহণের আশায় অনেক খেটে খাওয়া মানুষকে অবস্থান করতে দেখা গেছে।

এদিকে রাতের বেলায় সূর্যের দখল নেই। তবুও ভ্যাঁপসা গরমে নাকাল মানুষ। এর মাঝে আছে অস্বস্তিকর খবর।

যেখানে আবহাওয়াবিদ আবু সাঈদ চৌধুরীর দেয়া তথ্যমতে, গেলো প্রায় ৪ দিন থেকে টানা গরমে জনজীবনে অস্বস্তি নেমে আসলেও ৩০ তারিখের আগে বৃষ্টিপাতের খুব একটা সম্ভাবনা নেই। তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় না সরে যাওয়া পর্যন্ত সিলেটে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। আর পুরোপুরি স্বস্তি ফিরতে কয়েকদিন অপেক্ষা করতে হবে। তবে আজ রাতের শেষ ভাগে কিছুটা বৃষ্টিপাত হতে পারে। কিন্তু বৃষ্টি না হলেও আগামীকাল মঙ্গলবার তাপমাত্রা কিছু কমবে বলে জানান তিনি।

এদিকে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, শ্রীমঙ্গলসহ, নোয়াখালী, চাঁদপুর, কুমিল্লা, রাঙামাটি, সীতাকুণ্ড, নোয়াখালী, ফেনী, রাজশাহী, পাবনা ও ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। দিন ও রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা, রাজশাহী ও ঢাকা বিভাগের দুই-এক জায়গায় দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্য এলাকার আকাশ আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি