সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের প্রণোদনা দেবে সরকার: কৃষিমন্ত্রী

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২২, ৬:৫৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ বছর আগে

সুনামগঞ্জে হাওরের বাঁধ ভেঙে ৫ হাজার হেক্টর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের প্রণোদনা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সচিবালয়ে জাতীয় সমন্বয় ও পরামর্শক কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক এ কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘সুনামগঞ্জের হাওরের কৃষকদের জন্য প্রণোদনা কর্মসূচি নেয়া হবে। আমাদের প্রণোদনা আছে। আমরা ইতোমধ্যে কর্মসূটি নিয়েছি আউশে প্রণোদনা দেয়ার জন্য। ক্ষয়ক্ষতি মেটানোর জন্য সরকার চাষীদের পাশে থাকবে।’

হাওরে আকস্মিক বন্যায় কী পরিমাণ ফসলের ক্ষতি হয়েছে তা নির্দিষ্ট করে তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেননি কৃষিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি কৃষিমন্ত্রী হিসেবে সব সময়ই একটা আতঙ্কের মধ্যে থাকি। প্রকৃতির উপর তো আমাদের হাত নেই। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। তিনি বলেছেন, প্রস্তুতি রাখো যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য। ’

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘বোরোতে প্রতি বছর আমাদের ২ কোটি টন উৎপাদন হয়, এর মধ্যে ১২ লাখ টন হয় হাওরে, যেটা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তবে ১২ লাখ টনও বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় ব্যাপার। এটা আপনাদের জানা দরকার।’

সার ডিলারদের অনিয়মের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘ এই মুহূর্তে সার নিয়ে তেমন সমস্যা নেই। তবে কোনো অনিয়ম হলে অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এখানে ছাড় দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। এ সারের জন্য মানুষকে রক্ত দিতে হয়েছে, রাজপথ রঞ্জিত হয়েছে। কাজেই এখানে ছাড় দেয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

তিনি বলেন, ‘অতীতের যেকোনো রেকর্ডকে ব্রেক করে সর্বোচ্চ পরিমাণ ভর্তুকি বা প্রণোদনা যাই বলি বর্তমান সরকার দিচ্ছে। প্রতিবছর আমাদের ৮ থেকে ৯ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি থাকে বাজেটে। আমরা মনে করেছিলাম যে হারে আন্তর্জাতিক বাজারে সারের দাম বাড়ছে তাতে জুন পর্যন্ত ২৮ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হবে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে আন্তর্জাতিক বাজারে যে হারে দাম বাড়ছে ফলে আমাদের ৩০ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিতে হবে।’

 

 

 

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি