সিলেটে তুরুণীকে ধর্ষণ, সেনা সদস্য পুলিশের খাঁচায়

নিজস্ব প্রতিবেদক ;
  • প্রকাশিত: ৩১ মে ২০২১, ৭:৩৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ বছর আগে

সিলেট নগরের বন্দরবাজারের একটি হোটেলে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টা ও পূর্বে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে এসকে রাকিব উদ্দিন নামে সেনাবাহিনীর এক সদস্যকে আটক করেছে সিলেটের কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত ওই সেনাসদস্য সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের নুনাই এলাকার রইছ উদ্দিনের ছেলে। রোববার (৩০ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে বন্দরবাজার থেকে তাকে আটক করা হয়।

জানা যায়, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার এক তরুণীর সাথে ৪ বছর যাবৎ প্রেমের সম্পর্ক ছিল ওই সেনা সদস্যের। দীর্ঘদিনের প্রেমের সুবাদে ওই তরুণী রোববার দুপুরে বন্দরবাজারের হোটেল মজলিসে প্রেমিকের সাথে দেখা করতে যান। পরে সন্ধ্যায় ওই তরুণীকে ফের বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ধর্ষণ করতে চাইলে সে নারাজ হয়। পরে মেয়ে চিৎকার দিলে সেনাবাহিনী সদস্য এসকে রাকিব পালিয়ে যায়। তবে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে কোতোয়ালি থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে কোতায়ালি থানার বন্দর বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই মোস্তাফিজের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গিয়ে রাকিবকে আটক করে। আটকের পর তাকে কোতোয়ালি থানায় নিয়ে আসা হয়। এ সময় ভুক্তভোগী তরুণীেসেনা সদস্য রাকিবের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। এরপর তাকে সেনাবাহিনীর মিলিটারি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতায়ালি থানার ওসি এস এম আবু ফরহাদ বলেন, বন্দরবাজারে হোটেল মজলিসে এক তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টা ও পূর্বে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই মামলায় এসকে রাগীবকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ওই তরুণীকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি