সিলেটে জমে উঠেছে ঈদ বাজার

জয়ন্ত কুমার দাস;
  • প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২২, ৯:৪৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ বছর আগে

করোনার ধাক্কায় গত দুই বছর বিবর্ণ ছিলো ঈদবাজার। কেনাকাটা তেমন হয়নি গেলো চার ঈদে। তবে এবার পরিস্থিতিটা একটু ভিন্ন। করোনা সংক্রমণ অনেকটাই কমে এসেছে। চলাচলে-কেনাকাটায় এবারের ঈদে আর কোনো বিধিনিষেধ নেই। নতুন পোশাকে আবারও ঈদকে রঙিন করে তোলার সুযোগ এসেছে সামনে। পবিত্র ঈদ উল ফিতরের বাকি হাতেগোনা আর কয়েকদিন। ধীরে ধীরে নগরে জমে উঠেছে ঈদের বাজার। পায়ে পায়ে ভিড় বাড়ছে, বিপণীবিতান, শপিং মলে।

মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ উল ফিতরকে ঘিরে বর্ণিল সাজে সেজেছে সিলেট। নগরীর প্রতিটি মার্কেট আর শপিং মলে লাল-নীল বাতির আলোয় উজ্জ্বল পবিত্র এই নগরী। সকাল থেকে রাত অবধি ব্যস্ত সময় পার করছেন ক্রেতা বিক্রেতারা। কেনাকাটায় ছন্দ ফিরে আসায় খুশি ক্রেতা ও বিক্রেতারা। গত দুইবছর করোনার প্রকোপে ব্যবসা হয়নি বললেই চলে। ক্ষতি পুষিয়ে উঠার স্বপ্ন দেখছেন ব্যবসায়ীরা। অপরদিকে প্রিয়জনের জন্য নতুন জামা কিনতে পেরে হাসি ফুটছে ক্রেতাদের মুখেও।

নগরীর জিন্দাবাজারের ব্লু-ওয়াটার শপিং সিটি, কাকলি শপিং সেন্টার, আল-হামরা শপিং সেন্টার, শুকরিয়া মার্কেট, মধুবন সুপার মার্কেটসহ বেশ কয়েকটি শপিং মলে সরেজমিনে দেখা গেছে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। ভিড় চোখে পড়েছে ফ্যাশনপাড়া হিসেবে পরিচিত কুমারপাড়া-নয়াসড়কেও।

করোনার ধাক্কা কাটিয়ে উঠে দুই বছর পর ব্যবসায় গতি ফিরে আসায় স্বস্তিতে রয়েছেন বিক্রেতারা। নগরীর জিন্দাবাজারের কাকলী শপিং সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক মো. শিপন খান একাত্তরের কথাকে বলেন, এবার ঈদে বেচাকেনা ভালো আছে। তবে এখন দিনের বেলায় ক্রেতারা বেশি আসছেন। আশা করিছি রমজানের শেষের দিকে পুরোদমে বেচাকেনা শুরু হবে।

নগরীর কুমারপাড়ায় একটি বিপণীবিতানে কথা হয় সামিয়া ইসলাম নামে এক ক্রেতার সঙ্গে। তিনি একাত্তরের কথাকে জানান, এবার পছন্দের সবকিছুই পাওয়া যাচ্ছে মার্কেটে আর দাম একটু বেশি হলেও পছন্দের জামা কিনেছি। একই বিপণীবিতানের বিক্রেতা সাব্বির হোসাইন জানান, এবারে বিক্রির পরিমাণ বেড়েছে। ক্রেতাদের উপস্থিতি আমাদের আশা বাড়িয়ে তুলেছে। দুই বছর ব্যবসা করতে পারিনি। এবার সে দুঃখ ভুলতে পারবো।

এদিকে ঈদ বাজারকে নির্বিঘ্ন করতে তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিম) বিএম আশরাফ উল্ল্যাহ তাহের জানান, দশ রমজানের পর থেকে শহরের প্রতিটি মার্কেটে পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নজরদারি রাখছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি