শ্রীমঙ্গলে দুর্গাপূজায় তিনদিনের ছুটির দাবিতে মানববন্ধন

এস কে দাশ সুমন, শ্রীমঙ্গল;
  • প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:১৩ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৪ বছর আগে

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে সম্মিলিত সনাতনী সমাজের আয়োজনে শারদীয় দুর্গাপূজায় তিন দিনের সরকারি ছুটির দাবিতে ‌র‌্যালী ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কর্মসূচি শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলামের নিকট এবং প্রধানমন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

রোববার সকাল ১১ টা শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্তরে সৌরভ আদিত্য’র সঞ্চালনায় মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান মিতালী দত্ত, সাংবাদিক এস কে দাশ সুমন, সাংস্কৃতিক কর্মী নিতেষ সুত্রধর মাস্টার পাড়া পূজা সংসদের সম্পাদক ফনি ভূষন রায় চৌধুরী, পূজা উদযাপন পরিষদ আশীদ্রোন ইউনিয়নে এর সম্পাদক রাজিব শর্মা, সাংস্কৃতিক কর্মী কৌশিক ভট্রাচার্য, বৈদিক সেবা সংস্থার অপিক দেব, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ মৌলভীবাজার জেলা শাখার সদস্য সুমন দাশ, পরম যুব সংঘের সাধারণ সম্পাদক দ্বিগ্বিজয় রায় আকাশ প্রমূখ।

মানববন্ধনে আরো উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক লিটন ভট্টাচার্য্য, হিন্দু মহাজোট শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সহ- সাধারণ সম্পাদক তিমির বনিক, অবজারভার সাংবাদিক রুপম আচার্য্য, সিলেট টুডে প্রতিনিধি হৃদয় দাশ শুভ, কিশোরী ক্লাবের সভাপতি সুচিত্রা দেব, পিংকি দাশ প্রমূখ।

প্রথমে হবিগঞ্জ রোডস্থ শ্রীশ্রী জগন্নাথ দেবের আখড়া প্রাঙ্গন হতে র‌্যালী শুরু হয়ে মৌলভীবাজার রোড প্রদক্ষিন করে চৌমুহনা চত্তরে এসে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় কর্মসূচিতে হিন্দু নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা অংশগ্রহণ করেন।

এসময় বক্তরা বলেন, দশমিতে ছুটি থাকায় পূজা চলাকালীন সময়ে পুষ্পাঞ্জলি ও প্রার্থনার সুযোগ নেই। স্বাধীনতা উত্তর ও পরবর্তী সময়েও এই দেশে দুর্গাপূজায় একাধিক দিন ছুটির ব্যবস্থা ছিল। সংবিধানে সকল ধর্মের মানুষের জন্য সমান অধিকার ও সুযোগ সুবিধার বিধান থাকা সত্ত্বেও এদেশের হিন্দু সম্প্রদায় সে সুযোগ সুবিধা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সে কারণে এদেশের হিন্দু সম্প্রদায় সরকারের কাছে দূর্গা পূজায় তিনদিনের সরকারি ছুটি দাবি করছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি