বান্দরবানে সিলেটের দুই জঙ্গিসহ আটক ৫

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২৩, ৯:৪৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: ৩ সপ্তাহ আগে

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি-রুমা এলাকায় অভিযান চালিয়ে জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বিয়ার প্রশিক্ষণরত আরও পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাব। বুধবার রাতে র‍্যাব বান্দরবানের থানচি ও রোয়াংছড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁদের আটক করে।

আটককৃতরা হলেন, নোয়াখালী জেলার নিজামউদ্দিন হিরণ ওরফে ইউসুফ (৩০), কুমিল্লা জেলার সালেহ আহমেদ ওরফে সাইহা (২৭), মো. বাইজিদ ইসলাম ওরফে মুয়াজ (২১), ইমরান বিন রহমান শিতিল (১৭), এবং সিলেট জেলার সাদিকুর রহমান সুমন ওরফে বাইরু (২১)।

আটক জঙ্গিরা নতুন জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বিয়ার সদস্য।

র‌্যাব জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পার্বত্য জেলা বান্দরবানের থানচি ও রোয়াংছড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী দুর্গম পাহাড়ি এলাকাগুলোতে প্রায় তিন মাস ধরে র‌্যাব সাঁড়াশি অভিযান চালায়।

অভিযানে নতুন জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বিয়া এবং পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সস্ত্রাসী সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) প্রশিক্ষণ আস্তানা থেকে পাঁচ জঙ্গিকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের কনফারেন্স রুমে প্রেস কনফারেন্সে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, নতুন জঙ্গি সংগঠনে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ঘরছাড়া ৫৫ যুবকই পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র সস্ত্রাসী সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) প্রশিক্ষণ আস্তানায় প্রশিক্ষণ নিয়েছে।

তাদের মধ্যে বুধবার অভিযানে রোয়াংছড়ি থেকে দুজন এবং থানচি থেকে তিনজনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। এ সময় আরও কয়েকজন জঙ্গি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তবে ইতোমধ্যে কয়েক দফায় চলমান অভিযানে পাহাড়ে প্রশিক্ষণ নেওয়া ১২ জঙ্গি এবং কেএনএফের ১৪ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

তার মধ্য প্রথম দফায় সাত জঙ্গি, দ্বিতীয় দফায় পাঁচ জঙ্গি এবং প্রথম দফায় কেএনএফের তিনজন ও দ্বিতীয় দফায় ১১ জনকে আইনের আওতায় নেওয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি