ক্লাসে ফিরলেন বিজ্ঞান শিক্ষক হৃদয় মন্ডল

সিলেট ডায়রি ডেস্ক;
  • প্রকাশিত: ১৯ এপ্রিল ২০২২, ৭:৪৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২ বছর আগে

ক্লাসে ফিরলেন মুন্সীগঞ্জের বিনোদপুর রামকুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞানশিক্ষক হৃদয় চন্দ্র মণ্ডল। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে দশম শ্রেণির সাধারণ বিজ্ঞান ক্লাসে পাঠদান করেন তিনি।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী এদিন বিদ্যালয়ে সম্প্রীতি সমাবেশের আয়োজন করে স্কুল কমিটি। শিক্ষক হৃদয় মণ্ডলের ক্লাসে ফেরা উপলক্ষেই এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সম্প্রীতি সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র হাজি মোহাম্মদ ফয়সাল বিপ্লব। এ ছাড়া মুন্সীগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমর ঘোষ, জেলা মহিলা পরিষদের সহসভাপতি হামিদা খাতুন, জেলা বার কাউন্সিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাসিমা আক্তার, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য রঞ্জন সাহা, মুন্সীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলমগীর খানসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

সভায় হৃদয় চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘আমাকে নিয়ে এরকম সভা হবে, যা কিনা সপ্নেও কল্পনা করতে পারিনি। সৃষ্টিকর্তা যা করেন মঙ্গলের জন্যই করেন। আমার ছাত্র যারা বিদেশে থাকে তারা আমাকে ফোন করেছে। তারা জানতে চেয়েছে আমার অবস্থা কী। আমি তাদের বলেছি, সমাজে ঘুণ ধরেছে। তবে চিন্তা করো না। এখনো সমাজে মানুষ ভালো মানুষ আছে। প্রতিহিংসা তারা প্রতিকার করবেই।’

হৃদয় মণ্ডলের বিরুদ্ধে গত ২০ মার্চ ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তোলে স্কুলের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। দুই দিন পর তার শাস্তির দাবিতে মিছিল করে। সে রাতে পুলিশ তাকে থানায় নেয়। ধর্ম অবমাননার মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে পাঠানো হয় কারাগারে।

১৯ দিন কারাভোগের পর ১০ এপ্রিল জামিনে ছাড়া পান তিনি। এরপর এক প্রতিক্রিয়ায় নিজের ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তিনি। বলেন, যাদের অভিযোগের কারণে তিনি কারাভোগ করেছেন, তাদের ওপর তার কোনো ক্ষোভ নেই। দ্রুত ক্লাসরুমে ফেরার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

জামিন পাওয়ার তিন দিন পর কর্মস্থলে যান শিক্ষক হৃদয় মণ্ডল। তবে সেদিন তিনি কোনো ক্লাস নেননি। কথা বলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের গঠন করা তদন্ত কমিটির সদস্যদের সঙ্গে। এই কমিটির সদস্যরা তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তদন্ত করতে স্কুলে যান।

শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও খবর...

পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরি